Home » Bengali News » মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধে আবেদনের অধিকার পেলেন কুলভূষণ

মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধে আবেদনের অধিকার পেলেন কুলভূষণ

হাইলাইটস

  • মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধে আবেদন জানাতে পারবেন পাকিস্তান জেলে বন্দি ভারতের প্রাক্তন নৌ-আধিকারিক কুলভূষণ যাদব!
  • দীর্ঘদিন ধরে পাকিস্তানে বন্দি ভারতের প্রাক্তন নৌ-আধিকারিক কুলভূষণ যাদবকে এমনই অধিকার দিতে চলেছে ইমরান খানের সরকার।
  • বুধবারই কুলভূষণকে সাহায্য করার জন্য একটি বিল পাকিস্তানের সংসদে পাশ করেছে ইমরান খানের সরকার।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধে আবেদন জানাতে পারবেন পাকিস্তান জেলে বন্দি ভারতের প্রাক্তন নৌ-আধিকারিক কুলভূষণ যাদব! দীর্ঘদিন ধরে পাকিস্তানে বন্দি ভারতের প্রাক্তন নৌ-আধিকারিক কুলভূষণ যাদবকে এমনই অধিকার দিতে চলেছে ইমরান খানের সরকার। বুধবারই কুলভূষণকে সাহায্য করার জন্য একটি বিল পাকিস্তানের সংসদে পাশ করেছে ইমরান খানের সরকার। জানা গিয়েছে, কুলভূষণ যাদবের মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালত (ICJ)-এর দ্বারস্থ হয়েছিল ভারত। তারপরই ICJ কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ডের উপর স্থগিতাদেশ দেয়। পাকিস্তানকে আদালতের রায় পর্যালোচনা ও পুনর্বিবেচনার নির্দেশ দেয়।

আন্তর্জাতিক ন্যায় আদালতের সেই নির্দেশের পর এক বছর কেটে গিয়েছে। কিন্তু, এ নিয়ে কোনও পদক্ষেপ করেনি পাকিস্তান। এখনও পাকিস্তান জেলেই বন্দি রয়েছেন কুলভূষণ যাদব। অবশেষে এদিন পাকিস্তানের সংসদে যৌথ অধিবেশনে আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালতের পর্যালোচনা ও পুনর্বিবেচনা বিষয়ক বিল পাশ হল। ফলে এবার কুলভূষণ যাদব মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধে এবং স্বপক্ষে আবেদন করার অধিকার পাবেন। কুলভূষণ নিজে অথবা কোনও ভারতীয় কৌঁসুলী তাঁর হয়ে পাকিস্তানের সামরিক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারবেন।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে ভারতের প্রাক্তন নৌসেনা আধিকারিক কুলভূষণ যাদবকে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে বালুচিস্তান থেকে গ্রেফতার করে পাক সেনা। যদিও সেই দাবি খারিজ করে ভারত জানায়, ইরানে ব্যবসা রয়েছে কুলভূষণ যাদবের। সেই সূত্রেই তাঁর বালুচিস্তান-যাত্রা। কিন্তু ভারতের দাবি অগ্রাহ্য করে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগেই কুলভূষণের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। ভারতের তরফে পাকিস্তানের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনা চালিয়েও প্রাক্তন নৌ-আধিকারিককে মুক্তি করানো সম্ভব হয়নি। টানা পাকিস্তানের জেলেই বন্দি রয়েছেন তিনি। বরং জেলের ভিতরে কুলভূষণের উপর অত্যাচারের নানা খবর প্রকাশিত হয়েছে।

এরপর ২০১৭ সালের এপ্রিলে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে কুলভূষণ যাদবকে মৃত্যুদণ্ড দেয় পাকিস্তানের সামরিক আদালত। একেবারে একতরফা ভাবেই এই রায় দেওয়া হয়। কুলভূষণকে স্বপক্ষে আদালতে আবেদন জানানোর অধিকার থেকে বঞ্চিত করে পাকিস্তানের আদালত। পাকিস্তানের সামরিক আদালতের সেই রায়ের বিরুদ্ধে ওই বছরেরই মে মাসে আন্তর্জাতিক ন্যায় আদালতের দ্বারস্থ হয় ভারত। তারপর ২০১৯ সালের জুলাইয়ে কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ডের উপর স্থগিতাদের দিয়ে পাকিস্তানকে সামরিক আদালতের রায় পর্যালোচনা ও পুনর্বিবেচনা করার নিদেশ দেয় আন্তর্জাতিক ন্যায় আদালত। এমনকি রায় পুনর্বিবেচনার সময় ভারতের প্রতিনিধিকে উপস্থিত রাখতে হবে বলেও নির্দেশ দেয় ICJ। এক বছর পর অবশেষে সেই রায় কার্যকর করল ইমরান খানের সরকার।


Source link

x

Check Also

‘হে বেবি’-র স্মৃতি ফিরিয়ে বলিউডে ফারদিনের সেকেন্ড ইনিংস

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: প্রায় এক দশক হতে চলেছে বড় পর্দা থেকে গায়েব Fardeen Khan। ...